সীতাকুণ্ডে ১৮টি বাস আটক, ১৪ মামলা IMG_20210510_033829 Full view

সীতাকুণ্ডে ১৮টি বাস আটক, ১৪ মামলা

বার্তাঃ করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে সরকার আন্তজেলা গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রেখেছে। অথচ পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে মহাসড়কগুলোতে রাতের বেলায় চলাচল করছে আন্তঃজেলা গণপরিবহণ। আর তার যাত্রীদের কাছ থেকে আদায় করছে ডবলের চেয়েও বেশি ভাড়া।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১৮ টি বাস আটক করেছে।

মহাসড়কের সীতাকুণ্ড অংশে বার আউলিয়া হাইওয়ে থানার চেকপোস্ট থাকলেও রাতে হাইওয়ে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে সরকারী নির্দেশ অমান্য করে চট্টগ্রাম থেকে দেশে বিভিন্ন জেলায় যাতায়াত করছে অসংখ্য আন্তজেলা গণপরিবহন। ঈদকে কেন্দ্র করে এ সড়কে ঘরমুখো মানুষের চাপ বৃদ্ধি পেয়েছে। যার ফলে রাতে চলাচলকারী আন্তঃজেলা বাসগুলোতে যাত্রীদের কাছ থেকে ডবলের চেয়েও অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে।

এদিকে রাতের আঁধারে চলাচলকারী ১৮টি দুরপাল্লার বিভিন্ন রোডের আন্তঃজেলা বাস আটক করেছে বার আউলিয়া হাইওয়ে থানা পুলিশ। মামলা দেওয়া হয়েছে ১৪ বাসকে।

আটককৃত বাসগুলো চট্টগ্রাম শহর থেকে যাত্রী নিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলার দিকে ছুটছিল। এসময় সীতাকুণ্ডে অংশে মহাসড়কে পুলিশী চেকপোস্ট বাসগুলো থামিয়ে দেওয়া হয়। সেখান থেকে যাত্রীদের নামিয়ে দিয়ে আটক বাসগুলো থানায় জব্দ করা হয়।

এব্যাপারে বার আউলিয়া হাইওয়ে থানার এসআই আবুল হাসনাত বলেন, সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে চট্টগ্রাম থেকে রাতে দেশের বিভিন্ন জেলায় আন্তজেলা গণপরিবহন চলাচল করার সময় চেকপোস্ট ১৮ টি বাস আটক করা হয় এবং ১৪ টি মামলা দেওয়া হয়। বাসগুলো যাত্রীদের কাছ থেকে ডবলের চেয়েও বেশি ভাড়া আদায় করছে বলে যাত্রীরা অভিযোগ করছেন।
সূত্রঃ পাঠক নিউজ

Written by Mohammad Nadim

Leave a comment